Wednesday, September 28, 2022

চাপের মুখে দল ও মন্ত্রী সভা থেকে পার্থকে সরালেন

কলকাতা : অবশেষে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে (Partha Chatterjee) তিন দফতর থেকে বহিষ্কার করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আজ, বৃহস্পতিবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠক ছিল। তার আগেই পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে তিন দফতর থেকে সরানোর সিদ্ধান্ত নেন মুখ্যমন্ত্রী।

সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা রাজভবনকেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় রাজ্যের শিল্প ও বাণিজ্য মন্ত্রী ছিলেন। সেই সঙ্গে তথ্য ও প্রযুক্তি দফতর, পরিষদীয় দফতরও তাঁর অধীনে ছিল। এই সমস্ত দফতর থেকেই তাঁকে সরানো হয়েছে।

তাত্‍পর্যপূর্ণ ভাবেই এই সমস্ত দফতর এখন নিজের কাছেই রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী। অর্থাত্‍ শিল্প ও বাণিজ্য, শিল্প পুনর্গঠন, তথ্য ও প্রযুক্তি এবং সংসদ বিষয়ক দফতরের দায়িত্বও সামলাবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই মর্মে নতুন বিজ্ঞপ্তিও প্রকাশ করেছে রাজভবন।

পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে ইডি গ্রেফতার করার পর শুরুতেই তাঁকে বরখাস্ত করেননি মুখ্যমন্ত্রী। তৃণমূলের একটি সূত্রের মতে, বিজেপির কৌশল মোকাবিলা করার জন্য গোড়ায় কিছুটা সময় নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ডায়মন্ড সিটি থেকে ২২ কোটির পরে বেলঘরিয়ায় পার্থ-বান্ধবীর ফ্ল্যাট থেকে আরও ২৮ কোটি টাকা উদ্ধারের পর যে রকম ছিঃ ছিঃ শুরু হয়েছে তাতে পার্থকে অব্যাহতি দেওয়া ছাড়া উপায়ান্তর ছিল না। না হলে ওই কালির ছিটে সরকার ও দলের গায়ে এসে লাগছিল।

রাজ্য মন্ত্রিসভা থেকে পার্থকে এভাবে সরানোতেই ব্যাপারটা থেমে থাকবে না বলে মনে করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে তৃণমূল ভবনে দলের শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটির বৈঠক ডেকেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। পার্থকে দলের মহাসচিব পদ থেকে সরানোর ব্যাপারে ওই বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে।

এখন দেখার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সিদ্ধান্তের পর পার্থ চট্টোপাধ্যায় কী প্রতিক্রিয়া দেন। ইডি হেফাজতে থাকা পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে বুধবার জোকার ইএসআই হাসপাতালে চেক আপের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তখন সাংবাদিকরা তাঁকে প্রশ্ন করেন, ‘আপনি কি মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দেবেন?’ জবাবে পার্থ বলেন, ‘কী কারণে?’

পার্থর এই মেজাজ দেখে তৃণমূলের মধ্যে ক্ষোভ ও অসন্তোষ আরও বাড়তে থাকে। দলের একটি সূত্রের মতে, পার্থর ওই চোখ পাকানো আর বিকেলে বেলঘরিয়ার ফ্ল্যাট থেকে টাকা উদ্ধারের পর তাঁকে অপসারণের জন্য অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের অনুগামীরা চাপ বাড়াতে শুরু করেন। এর পরই চরম সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু তা নয়, এদিন বিকেলে ইন্ডাস্ট্রি প্রমোশন কাউন্সিলের বৈঠক ডেকে মুখ্যমন্ত্রী এও বুঝিয়ে দেন, পার্থকে অব্যাহতি দেওয়ায় কাজে কোনও ফারাক হবে না। সরকারের কাজ যেমন চলছিল তা চলবে।

Latest Updates

RELATED UPDATES